চার মাসে ২৫০টি সাম্প্রদায়িক সহিংসতার ঘটনা ঘটেছে

 Posted on

দলিত কণ্ঠ ডেস্ক : সরকারি দলের ভেতরের ও বাইরের সাম্প্রদায়িক অপশক্তির মেলবন্ধন এর মধ্য দিয়ে সারাদেশে সম্ভাব্য জঙ্গি হামলার জন্য সংখ্যালঘুদের উপর বিভিন্নমুখী নির্যাতন চালানো হচ্ছে । এরই ধারাবাহিকতায় পঞ্চগড়ে অ্যাডভোকেট পলাশ রায়কে কারাভ্যন্তরে পুড়িয়ে হত্যা করা হয় । পিরোজপুরের প্রিয়া সাহার বাড়ি জ্বালিয়ে দেওয়া হয় । ফরিদপুরে প্রবীর সিকদারের ভাইয়ের পরিবার এবং বোনের পরিবারের বাড়িঘরে হামলা চালিয়ে বাড়ি তালাবদ্ধ করে তাদেরকে রাতের আঁধারে বাসে তুলে দেয়া হয়েছে ।

বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট রানা দাশগুপ্ত আজ ১৯ মে সকাল ১১ টায় জাতীয় প্রেসক্লাবের ভিআইপি লাউঞ্জে এক সংবাদ সম্মেলনে উপরোক্ত কথাগুলো বলেন । তিনি লিখিত বক্তব্যে আরও বলেন চলতি বছরের জানুয়ারি মাস থেকে এপ্রিল মাস পর্যন্ত সাম্প্রদায়িক সহিংসতার যে চালচিত্র তা দেশের সংখ্যালঘু জনগোষ্ঠীকে উদ্বিগ্ন করে তুলেছে । রানা দাশগুপ্ত বলেন, ২০১৮ সালের গোটা বছরের চালচিত্রকে সামনে এনে নির্দ্বিধায় বলা যায় সাম্প্রদায়িক সহিংসতার মাত্রা আগের তুলনায় অনেক বেড়েছে, কারণ ২০১৮ সালের এক বছরে সাম্প্রদায়িক সহিংসতার ঘটনা ছিল ৮০৬টি, আর চলতি বছর প্রথম চার মাসেই হয়েছে ২৫০টি । তিনি অবিলম্বে সংখ্যালঘু নির্যাতন বন্ধে সরকারের আশু পদক্ষেপ গ্রহণের দাবি জানান । এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন কাজল দেবনাথ, বাসুদেব ধর, শুদ্ধানন্দ মহাথের, মিলন দত্ত প্রমুখ । সংবাদ সম্মেলনে সভাপতি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নির্মল রোজারিও ।

Facebook Comments