সাতক্ষীরায় মাছের ঘের রক্ষা ও নিরাপত্তার দাবিতে ঘের লিজ গ্রহীতার সংবাদ সম্মেলন

 Posted on


রঘুনাথ খাঁ, সাতক্ষীরা ঃ
অবৈধভাবে ঘের দখলের চেষ্টার ঘটনায় থানায় মামলা করায় আসামীরা বাদীকে মারপিট, খুন জখমসহ মিথ্যা মামলায় জড়িয়ে হয়রানি করার হুমকি দিচ্ছে। শনিবার দুপুরে সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে এই অভিযোগ করেন সাতক্ষীরার কালিগঞ্জ উপজেলার ভাড়াশিমলা গ্রামের মৃত নকুল চন্দ্র সাহার ছেলে ঘের লিজ গ্রহণকারী লক্ষ্মীপদ সাহা।

লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, কালিগঞ্জের কামদেবপুর মৌজায় ১০টি দাগে ৯.৩২ একর জমি ক্রয়সূত্রে মালিক ভাড়াশিমলা গ্রামের মৃত. শেখ মতলেব আলীর ছেলে শেখ রমজান আলী। তিনি রমজান আলীর কাছ থেকে ওই জমি ২০২৪ সাল পর্যন্ত ইজারা নিয়ে চিংড়ি ঘের পরিচালনা করে আসছেন। কিন্তু ভাড়াশিমলা গ্রামের শেখ আব্দুল করিমের ছেলে শেখ মুনজুরুল ইসলাম বিভিন্নভাবে তার ওই ঘের অবৈধভাবে দখলের চক্রান্ত শুরু করে। একপর্যায় গত ১৩ জানুয়ারি রাতে মুঞ্জুরুলের নেতৃত্বে তার ছেলে ওয়াসিম পাপ্পু, জাকির হোসেনসহ ভাড়াটিয়া লোকজন নিয়ে তার মাছের ঘেরে হামলা চালিয়ে জোরপূর্বক দখল করে নেয়। এসময় তারা মাছ লুট ও ঘেরের বাসায় আগুন দিয়ে প্রায় দুই লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি সাধন করে। এঘটনায় তিনি নিজে বাদী হয়ে চারজনের নামে থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

ঘের মালিক লক্ষ্মীপদ সাহা আরো বলেন, বিষয়টি নিয়ে গত ১০ ফেব্র“য়ারি দুপুরে কালিগঞ্জ থানায় একটি সালিসি বৈঠক বসে। সেখানে বিচারের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী জমির মালিক শেখ রমজান আলীকে তার জমির দখল বুঝিয়ে দিলে তিনি ঘের ফেরত পান। কিন্তু বেলা আড়াইটার দিকে শেখ মুঞ্জুরুল ইসলাম, তার ছেলে ওয়াসিম পাপ্পু ও জাকির হোসেন ও মোঃ আব্দুস সাত্তার সহ ৪/৫ জন লোহার রড, বাঁশের লাঠিসহ দেশীয় অস্ত্র শস্ত্র নিয়ে আমার ঘেরে ফের হামলা চালায়। এসময় তারা জমির মালিক শেখ রমজান আলীর কাছে দু’ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে। চাঁদার টাকা না দেয়ায় তারা রমজান আলী ও তার স্ত্রী নাজমুন নাহার ও মেয়ে তামান্নাকে মারপিট করে। খবর পেয়ে কালিগঞ্জ থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছালে মঞ্জুরুল লোকজন নিয়ে পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় শেখ রমজান আলী বাদী হয়ে থানায় উলি­খিত চারজনের নামে একটি মামলা দায়ের করেন। পুলিশ রাতেই আসামি সাত্তারকে গ্রেপ্তার করে। পুলিশের ত্বরিৎ ভূমিকায় তারা আবারো ঘেরের দখল বুঝে পান।

তিনি অভিযোগ করে বলেন, মঞ্জুরুলসহ কয়েকজনের নামে থানায় মামলা হওয়ায় তারা আবারও প্রকাশ্যে ঘের দখলের হুমকি দিচ্ছে। মঞ্জুরুল ও তার ছেলে পাপ্পুসহ অন্যরা তাকে মারপিট ও খুন জখমের পাশাপাশি মিথ্যে মামলায় জড়িয়ে হয়রানি করার হুমকি ধামকি দিচ্ছে। মঞ্জুরুল প্রকাশ্যে বলছে তুই দেশ ছেড়ে ভারতে চলে যা, নইলে তোর লাশ কেউ খুঁেজ পাবে না। ফলে ভয়ে পরিবারের সদস্যদের নিয়ে তিনি চরম নিরাপত্তহীনতায় ভুগছেন।

তিনি ভূমিদস্যু মঞ্জুরুলের কবল থেকে ঘের রক্ষাসহ পরিবারের সদস্যদের জীবনের নিরাপত্তা ও মিথ্যে হয়রানি থেকে পরিত্রানের দাবিতে সাতক্ষীরা পুলিশ সুপারসহ পুলিশের উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

Facebook Comments