সরকারি নির্দেশনা অমান্য করে স্কুলে পাঠদান : প্রধান শিক্ষককে অর্থদন্ডাদেশ ও শোকজ

 Posted on

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি :
পাঠ্যবই হাতে নিয়ে কয়েকজন চতুর্থ শ্রেণির শিক্ষার্থী রাস্তা দিয়ে বই হাতে নিয়ে বাড়ির উদ্দেশ্যে যাওয়ার পথে দেখতে পান ইউএনও সাহেব। তখন তিনি ওই শিক্ষার্থীদের জিজ্ঞেস করেন কোথা থেকে আসলে তোমরা? শিক্ষার্থীরা উত্তরে জানায় কেন! স্কুল থেকে আসলাম। সাথেসাথে স্কুলে গিয়ে ইউএনও সাহেব দেখেন প্রধান শিক্ষক পাঠদান করাচ্ছেন। সরকারি নির্দেশনা অমান্য করে স্কুল খুলে পাঠদান অব্যাহত রাখায় প্রধান শিক্ষককে ১০ হাজার টাকা অর্থদন্ডাদেশ দেন মোবাইল কোর্ট। এছাড়াও ওই শিক্ষককে শোকজ করেছেন উপজেলা শিক্ষা অফিসার।

অভিযুক্ত ওই শিক্ষকের নাম মাহবুব। তিনি সুলতান সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক।

ঘটনাটি মঙ্গলবার (১৭ নভেম্বর) দুপুরে কুষ্টিয়ার কুমারখালী উপজেলার সদকী ইউনিয়নের সুলতানপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ঘটেছে। মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন উপজেলা নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও নির্বাহী অফিসার রাজীবুল ইসলাম খান।

এবিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার রাজীবুল ইসলাম খান বলেন, সুলতানপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সরকারি আদেশ অমান্য করে বিদ্যালয়ে শ্রেণি পাঠদান অব্যাহত রাখায় মোবাইল কোর্টে সংক্রামক রোগ (নিয়ন্ত্রণ প্রতিরোধ ও নির্মুল) আইন ২০১৮ অনুযায়ী তাকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।এছাড়াও বিষয়টি তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য উপজেলা শিক্ষা অফিসারকে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

উপজেলা শিক্ষা অফিসার জালাল উদ্দীন বলেন, নির্দেশনা অমাণ্য করে পাঠদান অব্যাহত রাখায় সুলতান সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষককে প্রাথমিকভাবে শোকজ করা হয়েছে এবং সঠিক কারণদর্শাতে না পারলে উপযুক্ত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

অভিযুক্ত  প্রধান শিক্ষক মাহবুব মুঠোফোনে বলেন, মূল্যায়ন পরীক্ষার জন্য শিক্ষার্থীদের প্রস্তুতি ক্লাস নিচ্ছিলাম। প্রতিদিন নয়, মাঝে মাঝে ক্লাস নেওয়া হয়।

Facebook Comments