রাজবাড়ীতে কলেজের অধ্যক্ষ ও উপাধ্যক্ষ নিয়োগ স্থগিত!

 Posted on


\ রাজবাড়ী প্রতিনিধি \
বুধবার অনুষ্ঠিতব্য রাজবাড়ী জেলা শহরের ডাঃ আবুল হোসেন কলেজের অধ্যক্ষ ও উপাধ্যক্ষ পদে নিয়োগ কার্যক্রম স্থগিত করা হয়েছে। একই সাথে মঙ্গলবার দুপুরে রাজবাড়ীর সহকারী জজ আদালত থেকে ২০ কার্যদিবসের মধ্যে কেন অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞা প্রদান করা হবে না তার নোটিশও গভর্নিং বডি এবং নিয়োগ কমিটির সদস্যদের প্রদান করা হয়েছে।
জানা গেছে, ডাঃ আবুল হোসেন কলেজের অধ্যক্ষ ও উপাধ্যক্ষ পদে নিয়োগ প্রার্থী হিসেবে আবেদন করেছেন, সহযোগী অধ্যাপক খোন্দকার ফারুক আহম্মেদ, চৌধুরী আহসানুল করিম হিটু, মোঃ সেলিম মিয়া, মোঃ নুরুল ইসলাম, শামীমা চৌধুরী, মোঃ সাহেব আলী বিশ্বাস, মোঃ শাজাহান খান, মোঃ হাবিবুর রহমান, শামিমা আক্তার মুনমুন এবং ফরিদপুরের বিমল চন্দ্র। এর মধ্যে এই নিয়োগ পরীক্ষা স্থগিত চেয়ে মঙ্গলবার রাজবাড়ীর সহকারী জজ আদালতে আবেদন করেন।
আবেদনকারী চৌধুরী আহসানুল করিম বলেন, তাদের আবেদনের প্রেক্ষিতে আদালত ২০ কার্যদিবসের মধ্যে কেন অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞা প্রদান করা হবে না তার নোটিশও ম্যানেজিং কমিটি এবং নিয়োগ কমিটির সদস্যদের প্রদান করেছে।
অপরদিকে কলেজ গভিনিং বোর্ডের বিদ্যোৎসাহী সদস্য ও রাজবাড়ী সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এ্যাডঃ ইমদাদুল হক বিশ্বাস জানান, বুধবার ডাঃ আবুল হোসেন কলেজের অধ্যক্ষ ও উপাধ্যক্ষ পদে নিয়োগ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবার কথা ছিলো। এ নিয়ে মঙ্গলবার সকালে কলেজ গভনিং বডি এবং নিয়োগ কমিটির সদস্যদের সভা কলেজে অনুষ্ঠিত হয়। কলেজ গভনিং বডি সভাপতি ও রাজবাড়ী জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ফকির আব্দুল জব্বারের সভাপতিত্বে ওই সভা অনুষ্ঠিত হয়। যেহেতু গভনিং বোর্ডির সভাপতির মেয়ে অধ্যক্ষ ও উপাধ্যক্ষ পদে আবেদন করেছেন সে কারণে সভাপতি ফকির আব্দুল জব্বারকে নিয়োগ কমিটির বাইরে রাখা হয়েছে।
তিনি আরো বলেন, যেহেতু নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের পর ইতোমধ্যেই ৬ মাস অতিক্রান্ত হয়েছে, সেহেতু এই নিয়োগ পরীক্ষা বৈধ হবে না। সে কারণে পরীক্ষার দিন ডিজির প্রতিনিধির উপস্থিতিতে ওই পরীক্ষার ব্যাপারে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেয়ার জন্য এই সভা। যদিও একই দিন দুপুরে ডিজির কার্যালয় থেকে এই পরীক্ষা ২০ দিনের জন্য স্থগিত করে পত্র দেয়া হয়েছে। সেই সাথে আদালত যে কারণ দর্শানোর নোটিশ করেছে, ওই নোটিশের জবাব তারা নির্ধারিত সময়ের প্রদান করা হবে।

Facebook Comments