দেশজুড়ে নারীদের উপর সহিংসতার প্রতিবাদে সাতক্ষীরায় মানববন্ধন ও সমাবেশ

 Posted on


\ রঘুনাথ খাঁ, সাতক্ষীরা \
নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলার একলাশপুর ইউনিয়নের একটি গ্রামে এক নারীকে বিবস্ত্র করে নির্যাতনসহ দেশজুড়ে নারীদের উপর সহিংসতার প্রতিবাদে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। সাতক্ষীরা জেলা নাগরিক কমিটির আয়োজননে মঙ্গলবার সকাল ১১টায় শহরের শহীদ আলাউদ্দিন চত্বরে এ কর্মসুচি পালিত হয়।
জেলা নাগরিক কমিটির আহবায়ক অধ্যাপক আনিসুর রহিমের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন নাগরিক কমিটির সদস্য সচিব এড. আবুল কালাম আজাদ, বিশিষ্ঠ শিক্ষাবীদ প্রফেসর আব্দুল হামিদ, মানবাধিকার কর্মী রঘুনাথ খাঁ, সাংবাদিক এম কামরুজ্জামান, মানবাধিকার কর্মী মাধব চন্দ্র দত্ত, মনিরুদ্দিন জেয়ারদার, অ্যাড. মনিরউদ্দিন, জাসদ নেতা প্রভাষক ইদ্রিস আলী, ওবায়দুস সুলতার বাবলু, বাসদ নেতা অ্যাড. নিত্যানন্দ সরকার, অ্যাড, আজাদ হোসেন বেলাল, প্রভাষক সালেহা আক্তার, উদীচির সাতক্ষীরা শাখার সভাপতি ছিদ্দিকুর রহমান. জেলা মহিলা পরিষদের সাধারণ সম্পাদক জ্যেস্না দত্ত, মানবাধিকার কর্মী অপরেশ পাল, শিল্পী চৈতালী মুখার্জী, নারী নেত্রী মরিয়ম মান্নান, লুইস রানা গাইন, সিপিবি নেতা আবুল হোসেন, প্রমুখ ।
বক্তারা বলেন, নোয়াখালির বেগমগঞ্জে গত ২ সেপ্টেম্বর এক নারীকে যেভাবে বিবস্ত্র করে পৈশাচিক নির্যাতন করা হয়েছে তা মধ্যযুগীয় যে কোন বর্বরতাকে হার মানিয়েছে। এরপর ৩২ দিন কেটে যায়ার পর ঘটনাটি ফেসবুকের মাধ্যকে আইনপ্রয়োগকারি সংস্থার নজরে আসাটা দুর্ভাগ্যজনক। যারা এ ধরণের ঘটনার সঙেআগ জড়িত তাদের ক্ষতাসীন দল আওয়ামী লীগের সঙ্গে সম্পৃক্ততার যথেষ্ট প্রমাণ রয়েছে। এ ছাড়া খাগড়াছড়ির পাহাড়ে প্রতিবন্ধি কিশোরী ধর্ষণ, সাভারে নীলা রায়কে কুপিয়ে হত্যা, সিিেলটের এমসি কলেজে স্বামীকে আটকে রেখে স্ত্রীকে গণধর্ষণের ঘটনা বিশ্বব্যাপি সমালোচনার ঝড় তুলেছে। এর সঙ্গে সাতক্ষীরার টুম্পা সাহা, বিউটি মণ্ডল ও শহরের ধোপাপুকুরে পঞ্চম শ্রেণীর এক স্কুল ছাত্রীকে খুলনায় ধরে নিয়ে যেয়ে ধর্ষণ, কালিগঞ্জের ভাড়াসিমলায় ইউনিয়ন ছাত্রলেিগর সাধারণ সম্পাদক সোহাগ হোসেনের একাদশ শ্রেণীর এক ছাত্রীকে ধর্ষণসহ রোববার বিকেলে কালিগঞ্জের গোলাখালির শ্নশান সংলগ্ন একটি গাছে বাজারের ব্যাগে নবজাতককে ঝুলিয়ে রেখে যাওয়ার ঘটনা দেশের আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতির জন্য হুমকিব স্বরূপ। এ সব ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের দ্রæত বিচার আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা না করলে আগামিতে বাংলাদেশ ধর্ষণকারিদের দেশ হিসেবে চিহ্নিত হবে।

Facebook Comments