খুলনা জেলা সুনাম কমিটির কর্মী সম্মিলনী অনুষ্ঠিত

 Posted on

শান্তনু দাশ :: সুরক্ষা, নাগরিক অধিকার ও মর্যাদা (সুনাম) খুলনা জেলা কমিটির আয়োজনে এবং ৪টি উপজেলা বটিয়াঘাটা, দাকোপ, ডুমুরিয়া, দিঘলিয়া উপজেলা কমিটির সমন্বয়ে গত ১২ জুলাই ২০১৯ শুক্রবার সকাল ১০ টায় স্থানীয় বটিয়াঘাটা বিশ্ব মুক্তিবানী সংস্থা মিলনায়তনে এক কর্মী সম্মিলনী অনুষ্ঠিত হয়। মানবাধিকার সংগঠন শারি ও হিউম্যানিটিওয়াচ এর সহযোগিতায় সুনাম খুলনা জেলা কমিটির সহসভাপতি সুনীল দাসের সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক মাহমুদ হাসান রনির সঞ্চালনায় কর্মী সম্মিলনীতে বক্তব্য রাখেন শারির অ্যাডভোকেসী সমন্বয়কারী রঞ্জন বকশী নুপু, প্রকল্প সমন্বয়কারী বিষ্ণু পদ দাস, হিউম্যানিটিওয়াচের সাধারণ সম্পাদক শরিফুল ইসলাম সেলিম, পিরোজপুর রয়েল বেঙ্গল ফাউন্ডেশনের প্রধান নির্বাহী মইনুল আহসান মুন্না, বাগেরহাট জেলা সুনাম কমিটির  সাধারণ সম্পাদক রবীন্দ্রনাথ দেবনাথ প্রমুখ। কর্মী সম্মিলনীতে আরো বক্তব্য রাখেন খুলনা জেলা কমিটির প্রভাষক পঞ্চানন মন্ডল, কাজী মাহফুজুর রহমান মুকুল, পলাশ দাশ, প্রভাষক এস এম সোহেল ইসহাক, রিংটন মন্ডল, জগন্মাথ কর্মকার, জি এম রাসেল ইসলাম, ডুমুরিয়া সুনাম কমিটির রিপন দাস, দিঘলিয়ার বেনজির আহমেদ মুকুল, মিনহাজুল ইসলাম রাজন, দাকোপ উপজেলার সাগর সেন, পুষ্পেন মন্ডল এবং বটিয়াঘাটা উপজেলা সুনাম কমিটির অরোজিত বিশ্বাস ও সুরঞ্জিত সরদার প্রমুখ। এসময় খুলনা জেলা সুনাম কমিটির পক্ষ থেকে ৪ উপজেলা সুনাম কমিটির ২ জন করে সেরা ৮ জন কর্মীকে এবং শারি’কে বিশেষ সম্মাননা প্রদান করে।

আলোচনায় বক্তারা বলেন, সুনাম কমিটি হলো মানবাধিকার সংগঠন। সরকারের প্রচলিত আইন ও পবিত্র সংবিধানে দেওয়া অধিকার প্রতিষ্ঠা করার লক্ষ্যে কাজ অব্যাহত রাখার অঙ্গীকার করে এবং আরও বলেন বর্তমান সময় এই ধরনের কর্মী সম্মিলনী খুবই সময়োপযোগী। সংখ্যালঘুদের মানবাধিকার সুরক্ষার জন্য যেমন রাষ্ট্রের দায়িত্ব রয়েছে, তেমনি ব্যক্তিগত তথা সামাজিক পর্যায়ে মানসিকতার পরিবর্তন আনা দরকার। সেকারণে এই সংগঠন খুবই প্রয়োজন। বক্তারা বলেন প্রতি বছর এই কর্মী সম্মিলনী হলে সকলে কথা বলার প্লাটফরম তৈরী হবে এবং আন্তরিকতা এবং কাছাকাছি আসবার সুযোগ তৈরি হবে।

Facebook Comments