কুষ্টিয়ায় বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে প্রেমিকার অনশন

 Posted on

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি:
কুষ্টিয়া সদর উপজেলায় বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে আমরণ অনশন করছে কলেজ পড়ুয়া এক প্রেমিকা (১৭)। প্রেমিকা বাড়িতে আসার খবর পেয়ে প্রেমিক সামাদ ইসলাম বাড়ি থেকে পালিয়ে যায়। শনিবার (২৮ নভেম্বর) সকালে কুষ্টিয়ার সদর উপজেলার আলামপুর ইউনিয়নের পুকুরপাড়া গ্রামে প্রেমিক সামাদের বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। সামাদ ইসলাম পুকুররপাড় এলাকার মজিদ বাগের ছেলে। সে রংমিস্ত্রির কাজ করে।

মেয়েটির অভিযোগে জানা গেছে, প্রায় তিন বছর ধরে আলামপুর পুকুরপাড়া গ্রামের মজিদ বাগের ছেলে সামাদের সঙ্গে পার্শ্ববর্তী বালিয়াপাড়া কলেজের ওই ছাত্রীর প্রেমের সম্পর্ক চলে আসছে। এর মধ্যে তাদের মধ্যে প্রায় ১৪ মাস ধরে একাধিকবার শারীরিক সম্পর্ক হয়। শারীরিক সম্পর্কের ঘটনা জানাজানি হলে ছেলের বাড়িতে বিয়ের প্রস্তাব পাঠায় মেয়ের পরিবার। এতে প্রেমিকের বাবা-মা মেনে না নেওয়ায় প্রেমিক সামাদের বাড়িতে বিয়ের দাবিতে আমরণ অনশনে বসে প্রেমিকা। বিয়ে না দিলে আত্মহত্যা করবে বলে হুমকিও দেয় সে।

এদিকে প্রেমিক বিয়ে করতে অসম্মতি জানিয়ে ঘটনার পর থেকেই পালাতক রয়েছে।

কলেজ পড়ুয়া মেয়েটি সাংবাদিকদের বলেন, আমি এখান থেকে যাব না। বিয়ে না করলে আত্মহত্যা করবো।

সামাদের বাবা মজিদ বাগ বলেন, কয়েকদিন আগে মেয়ে পক্ষ থেকে লোক এসেছিলো। তখন আমি আমার ছেলেকে জিজ্ঞাসা করলে সে এই মেয়ের সঙ্গে সম্পর্কের কথা অস্বীকার করে। এরপর হঠাৎ মেয়েটি আমার বাড়িতে মেয়েটি উঠে আসে। এখন দুপক্ষের আলোচনা করে সমস্যা সমাধানের চেষ্টা চলছে।

প্রেমিকার বাবা জানান, বিয়ের প্রস্তাব নিয়ে আমরা ছেলের বাড়িতে গেলে তারা আমাদের প্রস্তাবে রাজি হয়নি। তাই বিয়ের দাবিতে ছেলের বাড়িতে গিয়ে আমার মেয়ে উঠতে বাধ্য হয়েছে। এব্যাপারে দুই পক্ষ বসে বিষয়টি সমাধানের চেষ্টা চলছে।

কুষ্টিয়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল কালাম জানান, এবিষয়ে কিছুই জানিনা। এখন পর্যন্ত থানায় কেউ অভিযোগ দেয়নি।

Facebook Comments