ঈশ্বরদীকে ভিক্ষুক মুক্ত করা হবে : পি এম ইমরুল কায়েস

 Posted on


ঈশ্বরদী (পাবনা) প্রতিনিধি:
ঈশ্বরদী উপজেলায় ভিক্ষাবৃত্তির সাথে জড়িতদের তালিকা তৈরী করা হয়েছে। এদের ভিক্ষাবৃত্তি বন্ধ করতে বিকল্প কর্মসংস্থানের সুযোগ তৈরী করা হচ্ছে। অর্থ প্রাপ্তি সাপেক্ষে উপজেলার ৭টি ইউনিয়ন ও পৌরসভায় ভিক্ষুক নির্মূল করা হবে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর তহবিল ও সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সহায়তায় পর্যায়ক্রমে ঈশ্বরদী উপজেলা ভিক্ষুক মুক্ত করা হবে বলে জানান ঈশ্বরদী উপজেলা নির্বাহী অফিসার পি এম ইমরুল কায়েস। গত রবিবার ভিক্ষুক নির্মূলে ঈশ্বরদীতে অটোরিকশা, ভ্যান ও নগদ সহায়তা বিতরণকালে তিনি এসব কথা বলেন।
রবিবার (৪ এপ্রিল) উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তার কার্যালয়ের ভিক্ষুক পুর্নবাসন কর্মসূচির আওতায় এই সহযোগিতা উপজেলা পরিষদ চত্বরে বিতরণ করা হয়।
প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব নায়েব আলী বিশ্বাস। সভাপতিত্ব করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার পি এম ইমরুল কায়েস। ভাইস চেয়ারম্যান আতিয়া ফেরদৌস কাকলি ও সমাজ সেবা কর্মকর্তা মাসুদ রানা এসময় উপস্থিত ছিলেন।
উপজেলা চেয়ারম্যান বলেন, ভিক্ষাবৃত্তি একটি স্বাধীন জাতির জন্য মর্যাদাহানিকর। ভিক্ষাবৃত্তিকে নিরুৎসাহিত করতে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর উদ্যোগে ঈশ্বরদীতে এই পুনর্বাসনের কাজ শুরু হয়েছে।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার পিএম ইমরুল কায়েস আরও বলেন, ভিক্ষুকদের স্বাবলম্বী করে গড়ে তুলতে সরকার বিশেষ কর্মসূচি গ্রহণ করেছে। এরই ধারাবাহিকতায় আজ দু’জন ভিক্ষুককে অটোরিকশা, একজন ভিক্ষুককে অটোভ্যান এবং একজন ভিক্ষুককে বিকল্প কর্মসংস্থানের জন্য নগদ আর্থিক সহায়তা প্রদান করা হলো।

Facebook Comments