ভারতে দলিত যুবককে অত্যাচারের প্রতিবাদ

 Posted on

দেব হালদার, নয়াদিল্লি থেকে:

দালিত যুবকের ওপর হামলার প্রতিবাদ জানানোর জন্য কর্ণাটকের গুন্ডলুপেটের ভারানাপুর গেটের কাছে শনিমাহাত্মা মন্দিরের কাছাকাছি বিভিন্ন দালিত ও প্রগতিশীল সংগঠনের কর্মী, বৌদ্ধ সন্ন্যাসী সহ শত শত বিক্ষোভকারী জড়ো হয়েছিলেন। প্রতাপ নামের দলিত যুবককে মারধর করে কিছু উচ্চ বর্ণের মানুষ তাকে নগ্ন করে রাস্তায় হাঁটতে বাধ্য করে।  অপরাধীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে বিলম্বের জন্য বিক্ষোভকারীরা পুলিশের সমালোচনা করে।

যারা অংশগ্রহণ করেছিল তাদের মধ্যে ছিল ‘কর্ণাটক দলিত সংঘর্ষ সমিতি’ নামে  একটি সংগঠন, যে সংগঠনটি সমগ্র রাজ্য জুড়ে জাত-পাত বিরোধী আন্দোলনের সাথে সক্রিয়ভাবে জড়িত।

প্রতাপের সাথে ঘটে যাওয়া অত্যাচার ও হামলা  সাম্প্রতিক সময়ে দলিতদের বিরুদ্ধে ঘটে যাওয়া বহু অত্যাচারের মধ্যে একটি মাত্র।  এই ঘটনার ভিডিওটি সোশ্যাল মিডিয়াতে ভাইরাল হওয়ার পর ঘটনাটি সংবাদ মাধ্যমের নজরে এসেছে। গত ১২ই জুন, কর্ণাটক দলিত সংঘর্ষ কমিটি এই হামলার যথাযথ ও নিরপেক্ষ তদন্তের দাবিতে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে একটি প্রতিবাদ সমাবেশ করে।

৩ জুন গুন্ডলুপেটের বাসিন্দা প্রতাপের উপর হামলা করার আগে উচ্চ বর্ণের কিছু লোক অভিযোগ করেছিল এই বলে যে, প্রতাপ স্থানীয় মন্দিরে প্রবেশ করে মন্দিরের পবিত্রতা নষ্ট করেছে।  ঘটনার সাত দিন পর পুলিশ আক্রমণকারীদের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করে। প্রতাপ এখন মহীশুর  শহরে একটি বেসরকারি হাসপাতালে মানসিক বিষন্নতা ও অন্যান্য স্বাস্থ্য সমস্যাগুলির জন্য চিকিৎসা  নিচ্ছে। তার পরিবার দাবি করছে যে প্রতাপ ভীষণভাবে মানসিক আঘাত পেয়েছে।

সোমবার কেন্দ্রীয় সরকার কর্তৃক তফসিলি জাতিদের জন্য গঠিত জাতীয় কমিশনের ভাইস-চেয়ারম্যান আই. মুরুগান প্রতাপ ও তার আত্মীয়দের সাথে সাক্ষাৎ করে বিস্তারিত তদন্ত করেন এবং দুই পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করার নির্দেশ দেন।  সেই দুই পুলিশ সদস্যকে, তফসিলি জাতি / তফসিলি উপজাতি (অত্যাচার প্রতিরোধ) আইনের ৪  নম্বর ধারা বলে কাজে অবহেলার জন্য বরখাস্ত করা হয়।  বরখাস্ত সহকারী উপ-পরিদর্শক সি রাজেন্দ্র প্রসাদ ও প্রধান কনস্টেবল শ্রীনিবাসকে এখন বিভাগীয় তদন্তের  সম্মুখীন হতে হচ্ছে।

জেলা প্রশাসক ইতিমধ্যেই ২৫ হাজার টাকা ক্ষতিপূরণ দিয়েছে। সরকারি রিপোর্টে বলা হয়েছে যে, অভিযোগপত্র দাখিল ও মামলা বন্ধ হওয়ার পর এই নির্যাতনের মামলায় অবশিষ্ট ক্ষতিপূরণ দেওয়া হবে।

Facebook Comments